Logo
নোটিশ :
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয় ।

দেশের ভ্যাকসিন তৈরীর কারখানা হবে গোপালগঞ্জে – স্বাস্থ্য মন্ত্রী

রিপোর্টার / ১০৩ বার
আপডেটের সময় : শনিবার, ২৬ জুন, ২০২১

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ ২৬ জুন-২০২১,শনিবার।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, দেশীয় টিকা উৎপাদন সময় সাপে হলেও ইতোমধ্যে কাজ শুরু হয়েছে। সরকার এ বিষয়ে খুবই আন্তরিক। প্রধানমন্ত্রী এ বিষয়ে নির্দেশনা দিয়েছেন। ইতোমধ্যে বিশেষজ্ঞদের নিয়ে বেশ কয়েকটি সভাও হয়েছে। দেশীয় ভ্যাকসিন তৈরির কারখানা স্থাপন হবে গোপালগঞ্জে সরকারী ওষুধ কারখানার পাশে অথবা সেখানে। সরকার লকডাউনের উপর নির্ভরশীল হতে চায় না। কিন্তু লকডাউন দিতে হয় বাধ্য হয়ে। যদি আপনার হাতে ভ্যাকসিন না থাকে তাহলে লকডাউনই করোনা সংক্রমণ রোধে একমাত্র কার্যকরী পন্থা।বিশ্বের সকলেই লকডাউন দিয়ে করোনাকে নিয়ন্ত্রন করেছে।
শনিবার(২৬ জুন) বিকালে মানিকগঞ্জের গড়পাড়ায় নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, আমরা লকডাউন চাই না। লকডাউনের মাধ্যমে মানুষের তি হয়। দেশের বিরাট তি হয়ে যায়। কাজেই এটা আমাদের কাম্য নয়। কিন্তু মানুষের জীবন রার্থে করোনাকে নিয়ন্ত্রন করতে লকডাউন আমাদের দিতে হচ্ছে।
কারন আপনারা জানেন ভ্যাকসিন যে সংখ্যায় চাই সে সংখ্যায় পাই না। আমরা ভারতের সাথে তিন কোটি ভ্যাকসিনের চুক্তি করেছিলাম। পেয়েছি মাত্র ৭০ ল। আর তারা উপহার দিয়েছিলেন ৩০ ল। এখনো দুই কোটি পাওনা আছে। চায়নার সাথে আমাদের দুই কোটি ভ্যাকসিনের চুক্তি আছে।সব মিলিয়ে ৬ কোটি ৮০ ল বুকিং দেয়া আছে। সবাই যদি তাদের কমিটমেন্ট রা করে তাহলে ডিসেম্বরের মধ্যে ১১ কোটি ভ্যাকসিন হাতে আসতে পারে। এতে সাড়ে পাঁচকোটি মানুষকে ভ্যাকসিন দিতে পারবো। আগামী বছরের মাঝামাঝি সময়ে জনসন এন্ড জনসনের সাত কোটি ভ্যাকসিন পাওয়া গেলে দেশে ৮০ শতাংশ মানুষকে ভ্যাকসিনের আওতায় নিয়ে আসা যাবে।
জাহিদ মালেক আরও বলেন, চিনের সিনোফার্ম কোম্পানীর সাথে চুক্তি হয়েছে। সেখান থেকে খুব তারাতারি ভ্যাকসিন আসবে। সংখ্যাটা এই মুহুর্তে বলা না গেলেও একটা ভালো সংখ্যা হবে বলে আশা করছি। সেই সাথে রাশিয়া ও চায়নাকে প্রস্তাব দেয়া হয়েছে আমাদের দেশে সরকারের সাথে অথবা প্রাইভেট কোম্পানীর সাথে যৌথভাবে ভ্যাকসিন তৈরি করার। তারা রাজি হলে এব্যাপারে ভ্যাকসিন তৈরীর অনুমোদন দেওয়া হবে।
তিনি আরো বলেন, ডব্লিউএইচও যে তথ্য দিয়েছে তাতে মডার্নার ভ্যাকসিন আগামী ৮ থেকে ১০ দিনের মধ্যে চলে আসবে। মডার্নার ভ্যাকসিন খুবই ভালো ভ্যাকসিন। মাইনেস ২০ ডিগ্রীতে রাখতে হয়। সে ব্যবস্থাও ইতোমধ্যে করা হচ্ছে।
লকডাউন সম্পর্কে স্বাস্থ্য মন্ত্রী জাহিদ মালেক আরো বলেন, দেশে করোনার কারণে মৃত্যুর হার বেড়ে গেছে। সংক্রামন হারও বেড়ে গেছে। তাই লকডাউন দিয়ে করোনা সংক্রামন হার কমানো চেস্টা চলেছে। আগামী সোমবার থেকে সাত দিনের জন্য সারা দেশে কঠোর লকডাউন বা সার্টডাউন ঘোষনা করা হয়েছে। এসময় মানুষজন প্রয়োজন ছাড়া ঘরে বাইরে বের হতে পারবেন না। এছাড়া করোনা সংক্রমিত ব্যক্তির বাড়িতে আগের মতো লাল পতাকা উত্তোলন করা হবে। এতে সাধারণ মানুষজন সচেতন হবে কোন ব্যক্তি করোনা সংক্রমিত হয়েছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

Theme Created By ThemesDealer.Com