Logo
শিরোনাম :
১২৪ রানের পুঁজি পেলো বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারের জন্য প্রস্তুত থাকার আহ্বান– প্রধানমন্ত্রীর নাগরপুরে যুবদলের ৪৩ তম প্রতিষ্ঠাবাষির্কী পালিত পাটুরিয়া ঘাটে ১৭টি ট্রাকসহ যানবাহন নিয়ে ডুবে গেল আমানত শাহ। উদ্ধার কাজ চলছে টাঙ্গাইলের এলেঙ্গাতে গলা কেটে স্কুলছাত্রীকে খুন পাটুরিয়া ঘাটে ১৭টি ট্রাকসহ যানবাহন নিয়ে ডুবে গেল আমানত শাহ পাংশায় ৭ বছরের শিশু যৌন নিপীড়নের শিকার জামালপুর সদরে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় নৌকার প্রতীক নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন ৫জন মানিকগঞ্জে পেঁপে চাষে ভাগ্য বদলে যাচ্ছে কৃষকদের ফরিদপুরে স্ত্রীকে পুড়িয়ে মারার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদন্ড
নোটিশ :
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয় ।

টাঙ্গাইলে করোনায় ৯ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত- ২০৭ জন

মুক্তার হাসান / ৫১ বার
আপডেটের সময় : সোমবার, ১২ জুলাই, ২০২১

মুক্তার হাসান,টাঙ্গাইল প্রতিনিধি :১২ জুলাই-২০২১,সোমবার।

গত ২৪ ঘন্টায় টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গে নয় জনের মৃত্যু হয়েছে। রোববার (১১ জুলাই) সকাল ৯টা থেকে সোমবার (১২ জুলাই) পর্যন্ত চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান। এ সময় নতুন শনাক্ত হয় ২০৭ জন। জেলায় মোট মৃত্যু ১৬৪ জন। মৃতদের মধ্যে করোনায় ৫জন এবং উপসর্গ নিয়ে ৪ জনের মৃত্যু হয়। শনাক্তের হার ২৮.৩১ ভাগ। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৪৩৪ জন। এদিকে চলতি মাসের এই ১২ দিনে জেলায় করোনায় ২ হাজার ৭৩০ জন আক্রান্ত, আর মৃত্যু হয়েছে ৫৬ জনের। গত জুন মাসে জেলায় ২ হাজার ৯২৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ২৬ জনের। টাঙ্গাইলে ব্যাপক হারে শহর থেকে গ্রামে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস। বিশেষ করে বিগত কয়েকদিন ধরে গ্রামে বেড়েই চলছে করোনায় আক্রান্ত এবং উপসর্গের সংখ্যা। হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা বাড়ায় কর্তৃপকে হিমশিম খেতে হচ্ছে। এমন পরিস্থিতে করোনার নতুন হটস্পর্টে পরিনত হতে চলেছে টাঙ্গাইল। সিভিল সার্জন অফিস সূত্র জানায়, রোববার টাঙ্গাইল এবং ঢাকায় ৭৩১টি নমুনা প্রেরণ করা হয়। এতে সোমবার নতুন করে ২০৭ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়। করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ৫ হাজার ৪৬৩ জন। হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ১২৭ জন। বাড়িতে আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছে ৪ হাজার ৬৮০ জন। এখন পর্যন্ত মোট ৩১ হাজার ৪৮৪ জনকে কোয়ারেন্টাইনে আনা হয়েছিলো। এর মধ্যে ২৬ হাজার ৩২৮ জনকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। জেলায় মোট ৫০ হাজার ৫৬৯টি নমুনা সংগ্রহ করে পরীার জন্য প্রেরণ করা হয়। এতে মোট আক্রান্তের হার ২০.৬৩ ভাগ। গত বছরের ৮ এপ্রিল জেলায় প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। সদর উপজেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা সব চেয়ে বেশি। আর সব চেয়ে কম করোনা রোগী শনাক্ত হয় বাসাইল উপজেলায়। জেলায় করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করায় টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ড পর্যায়ক্রমে করোনায় আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এ ব্যাপারে সিভিল সার্জন আবুল ফজল মো. শাহাবুদ্দিন খান বলেন, গত ১ মাস ধরে জেলায় করোনার রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলছে। বর্তমানে প্রায় ৭০ থেকে ৮০ ভাগ মানুষের ডেলটা ধরনের করোনায় আক্রান্ত। এই ধরন খুব দ্রুতই একজনের কাছ থেকে আরেকজনের ছড়ায়। যার কারণে জেলায় দ্রুতই করোনার আক্রান্তেরও সংখ্যা বাড়ছে। সবাইকে সচেতন এবং স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

Theme Created By ThemesDealer.Com