Logo
শিরোনাম :
পাংশায় প্রতিপক্ষের দুইদফায় হামলায় পিতা-পুত্র হাসপাতালে বাংলাদেশের ‘অভাবনীয়’ সাফল্যের প্রশংসায় জাতিসংঘ মহাসচিব মানিকগঞ্জে ব্যস্ত সময় পার করছে ৫ শতাধিক ঢাক- ঢোল তৈরির কারিগররা ঘিওরের বড়টিয়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রটির ৪টি পদ শূণ্য ।শত শত রোগীরা চিকিৎসা বঞ্চিত দৌলতপুরে ৮ ইউনিয়নে নির্বাচনী হাওয়া বইছে। প্রার্থীদের মনোনয়ন পেতে দৌড়ঝাপ । শনিবার থেকে বিমানবন্দরে পিসিআর ল্যাবে করোনা পরীক্ষা শুরু জাতিসংঘের উচ্চপর্যায়ের আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা প্রত্যাবসনে আন্তর্জাতিক শক্তির নিষ্ক্রিয়তায় মর্মাহত বাংলাদেশ পাংশায় যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উদ্যোগে মহিলাদের ৭দিন ব্যাপী হস্তশিল্প প্রশিক্ষণের উদ্বোধন পাংশায় হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত ২১০টি অনিয়মিত পত্রিকা বাতিলে তালিকা করা হয়েছে: তথ্যমন্ত্রী
নোটিশ :
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয় ।

টাঙ্গাইলে করোনায় ৫ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ২৫৬

মুক্তার হাসান / ৪৫ বার
আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই, ২০২১

মুক্তার হাসান, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি :২৭ জুলাই-২০২১,মঙ্গলবার।

গত ২৪ ঘন্টায় মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) টাঙ্গাইল জেলায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৪ জন ও উপসর্গ নিয়ে ১ জন মারা গেছে। এদিকে নতুন করে জেলায় ২৫৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। ৯২৪ টি নমুনা পরীার রির্পোটে ২৫৬ জনের করোনা সনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার শতকরা ২৭ দশমিক ৭০ ভাগ।
এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ১৪৯ জন। আক্রান্তদের মধ্যে মোট সুস্থ্য হয়েছে ৭ হাজার ৭৯ জন। সর্বমোট মারা গেছে ২০৫ জন। জেলার হাসপাতাল গুলোতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছে ১১০ জন। এদের মধ্যে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ৬৫ জন, কালিহাতী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২ জন, মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১৩, ঘাটাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩, নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২, সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৮ এবং মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে ১৭ এ নিয়ে মোট ১১০ জন। জেলায় বর্তমানে বাড়িতে ও আইসোলেশন থেকে চিকিৎসাধীন রয়েছে ৫ হাজার ৭৫৫ জন। টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন ডা. আবুল ফজল মোঃ শাহাবুদ্দিন এ তথ্য জানিয়েছেন।
প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ৮ এপ্রিল জেলায় প্রথম করোনাভাইরাস রোগী শনাক্ত হয়। জেলায় সর্বোচ্চ কোভিড আক্রান্ত রোগী সদর উপজেলায়। সিভিল সার্জন আবুল ফজল মো. শাহাবুদ্দিন খান বলেন, জেলায় দীর্ঘদিন করোনাভাইরাসে আক্রান্তের হার ঊর্ধ্বগতিতে থাকার পর লকডাউনের কারণে ধীরে ধীরে সংক্রমণের হার কমতে শুরু করেছে। পাশাপাশি মৃত্যুর সংখ্যাও কমছে, আবার অনেক সময় মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছেও। তিনি আরো বলেন, সরকারের নির্ধারিত প্রাপ্তবয়স্কদের টিকা নেয়ার পাশাপাশি মানুষ যদি সচেতন হয় এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে তাহলে আক্রান্তের হার কমা অব্যহত থাকবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

Theme Created By ThemesDealer.Com