Logo
শিরোনাম :
মানিকগঞ্জ জেলা পুলিশ **আমরা গর্বিত, আমরা উজ্জীবিত ** পাংশা সরকারী খাদ্য গুদাম পরিদর্শন করলেন আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক নাগরপুরে ৪ কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী জহুরুল গ্রেফতার টাঙ্গাইল জেলা পরিবেশক মালিক সমিতির অফিস উদ্ধোধন শিবালয়ে ইউপি নির্বাচন ৯ বিদ্রোহী প্রার্থী বহিস্কার ঘিওর প্রেসক্লাবের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনে সভাপতি-আনোয়ারুল- সম্পাদক- দীপু সৈয়দপুরে মাইক্রো-মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে একজন নিহত, দুইজন আহত গোয়ালন্দে পুলিশের অভিযানে মাদকসহ পলাতক আসামী গ্রেপ্তার রূপগঞ্জে রংধনু গ্রুপের উদ্যােগ ১০ হাজার শীতবস্ত্র বিতরন মানিকগঞ্জে ৭টি উপজেলাতে আলুর কেজি ৮ টাকা তবুও ক্রেতা নেই
নোটিশ :
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয় ।

গত ২৪ ঘন্টায় করোনা ভাইরাসে ১৭৮ মৃত্য

রিপোর্টার / ২০৫ বার
আপডেটের সময় : শনিবার, ১৪ আগস্ট, ২০২১

কালের কাগজ ডেস্ক: ১৪ আগস্ট ২০২১, শনিবার।

দেশে মহামারি করোনা ভাইরাসে প্রায় ১৯ দিন পর মৃত্যুর সংখ্যা দু’শোর ঘরের নিচে নামার পর তা আরও কমেছে। সঙ্গে কমেছে শনাক্তের সংখ্যাও। গত এক দিনে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১৭৮ জনের। আর শনাক্ত হয়েছে ছয় হাজার ৮৮৫ জন। দেশে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৩ হাজার ৯৮৮ জনে। আর মোট শনাক্তের সংখ্যা ১৪ লাখ ১২ হাজার ২১৮ জন।

শনিবার বিকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৩ হাজার ৩৩০টি নমুন পরীক্ষা করা হয়। উল্লিখিত সময়ে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন সাত হাজার ৮০৫ জন। মোট সুস্থ রোগীর সংখ্যা ১২ লাখ ৮১ হাজার ৩২৭ জন।

এর আগে ১৯ দিন পর শুক্রবার দেশে করোনাভাইরাসে মৃত্যু দুশোর নিচে নামে। এদিন মারা যায় ১৯৭ জন। এর আগে গত ২৪ জুলাই দুশোর কম মৃত্যু হয়েছি। সেদিন ১৯৫ জনের মৃত্যুর তথ্য জানানো হয়। এরপর থেকে টানা ১৯ দিন দুই শতাধিক মৃত্যু হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় করোনা শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৬৬ শতাংশ। এ পর্যন্ত করোনা শনাক্তের গড় হার ১৬ দশমিক ৮৬ শতাংশ। সুস্থতার হার ৯০ দশমিক ৭৩ শতাংশ। করোনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৭০ শতাংশ।

মারা যাওয়া ১৭৮ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ৬৭ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ৪৫ জন, রাজশাহী বিভাগের ১৪ জন, খুলনা বিভাগের ২৩ জন, বরিশাল বিভাগের সাতজন, সিলেট বিভাগের ১১ জন, রংপুর বিভাগের ছয়জন এবং ময়মনসিংহ বিভাগের পাঁচজন।

২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে ১০৮ জন পুরুষ এবং ৬৯ জন নারী। এদের মধ্যে বাসায় মারা গেছেন চারজন। বাকিরা হাসপাতালে মারা গেছেন। মোট মারা যাওয়াদের মধ্যে পুরুষ ১৫ হাজার ৮৪২ জন এবং নারী আট হাজার ১৪৬ জন।

গত একদিনে ১০৭ জন ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি মারা গেছেন। এছাড়া, ৫১ থেকে ৬০ বছরের ৪০, ৪১ থেকে ৫০ বছরের ১৩, ৩১ থেকে ৪০ বছরের ১২, ২১ থেকে ৩০ বছরের ৪, ১১ থেকে ২০ বছরের ১ ও ১০ বছরের কম বয়সী একজন মারা গেছেন।

২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ প্রথম মৃত্যুর খবর আসে। কয়েক মাস সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার ঊর্ধ্বগতিতে থাকার পর অনেকটা নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। চলতি বছরের শুরুতে করোনাভাইরাসের প্রকোপ অনেকটা নিয়ন্ত্রণে ছিল। তখন শনাক্তের হারও ৫ শতাংশের নিচে নেমেছিল। তবে গত মার্চ মাস থেকে মৃত্যু ও শনাক্ত আবার বাড়তে থাকে। জুলাই মাসজুড়ে পরিস্থিতি বেশি মারাত্মক পর্যায়ে থাকলেও গত কয়েক দিন ধরে পর্যায়ক্রমে কমছে মৃত্যু ও শনাক্তের সংখ্যা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

Theme Created By ThemesDealer.Com