Logo
শিরোনাম :
দৌলতপুরে পুলিশ সুপারের পূজামন্ডপ পরিদর্শন পোড়াবাড়ীতে মা’দুর্গা বিসর্জনের আগেই হিন্দুদের ভালবাসায় সিক্ত মিজান দৌলতপুরে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস পালিত বাংলাদেশ ঝুঁকি মোকাবিলায় বিশ্বের আদর্শ দেশ পাংশায় আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস-২০২১ ও সিপিপির ৫০ বছর পূর্তি উদযাপিত রাণীশংকৈলে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত নাগরপুরে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস পালিত রাণীশংকৈলে গলায় ফাঁস দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা সাবেক মন্ত্রী মোশাররফের এপিএস যুবলীগ নেতা ফোয়াদ ২ দিনের রিমান্ডে অবৈধ সম্পদ অর্জন মামলায় বাবরের ৮ বছরের কারাদণ্ড
নোটিশ :
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয় ।

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে দীর্ঘ সারিতে আটকে আছে সহস্রাধিক যানবাহন

রিপোর্টার / ৬৫ বার
আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৯ আগস্ট, ২০২১

শরিফুল  ইসলাম বাচ্চু (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি: ১৯ আগস্ট, ২০২১,বৃহস্পতিবার।
দেশের গুরুত্বপূর্ণ দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে তীব্র স্রোতের কারনে ফেরি পারাপার চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে। দৌলতদিয়া ঘাট প্রান্তে ৯ কিলোমিটার দীর্ঘ সারিতে আটকে আছে সহস্রাধিক যানবাহন। এখানে ৩-৪ দিনেও ফেরির নাগাল মিলছে না বলে ভুক্তভোগী চালকরা অভিযোগ করেন।এ অবস্থার মধ্যে ট্রাফিক পুলিশের এক সদস্য এক ট্রাক চালককে চরথাপ্পর মেরেছেন বলে ওই চালক অভিযোগ করেন। ঘাট সূত্রে জানা গেছে, রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়ায় বৃহস্পতিবার পদ্মা নদীর পানি ১০ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ২৫সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।

এতে করে নদীতে তীব্র স্রোতের কারণে দেশের গুরুত্বপূর্ণ দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। প্রতিটি ফেরি নদী পার হতে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে প্রায় দ্বিগুণ সময় লাগছে। এ ছাড়াও বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল কার্যত বন্ধ রয়েছে। যে কারণে দৌলতদিয়া -পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় কয়েকদিন ধরে তৈরি হচ্ছে পণ্যবাহী যানবাহনের লম্বা সারি। প্রতিটি পণ্যবাহী যানবাহনকে ফেরির নাগাল পেতে অপেক্ষা করতে হচ্ছে ৩ থেকে ৪ দিন পর্যন্ত।

বৃহস্পতিবার সরেজমিন দেখা যায়, দৌলতদিয়া ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের অন্তত ৩ কিলোমিটার জুড়ে অপচনশীল পণ্যবাহী ট্রাকের দীর্ঘসারি। এর মধ্যে রয়েছে প্রায় শতাধিক যাত্রীবাহী যানবাহন। এ ছাড়া একইভাবে ঘাট থেকে প্রায় ১৪ কিলোমিটার দুরে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের গোয়ালন্দ মোড় হতে আহলাদিপুর বাজার পর্যন্ত প্রায় ৬ কিলোমিটার এলাকায় পণ্যবাহী ট্রাক সিরিয়ালে আটকে রাখা হয়েছে। সব মিলিয়ে এ প্রান্তে সহস্রাধিক গাড়ি আটকে রয়েছে বলে সংশ্লিষ্টদের ধারনা। তবে জনদূর্ভোগ কমাতে যাত্রীবাহী যানবাহন ও কাঁচামাল বোঝাই ট্রাকগুলোকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারাপার করছে কতৃপক্ষ।

ঘাট সূত্রে জানা যায়, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ১৮টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হলেও পদ্মা-যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে তীব্র স্রোতের সৃষ্টি হচ্ছে। যে কারণে নৌরুটের ফেরিগুলোর স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত হয়ে ফেরির ট্রিপ সংখ্যা কমে গেছে । ফরিদপুর হতে ছেড়ে আসা বিআরটিসির ট্রাক চালক রাসেল মিয়া ও আঃ সালাম বলেন,তারা নদী শাষনের কাজে ব্যাবহৃত জিও ব্যাগ বোঝাই করে নরসিংদী যাচ্ছেন।গত সোমবার তারা গোয়ালন্দ মোড়ে এসে সিরিয়ালে আটকে পড়েন। সেখানে ৩ দিন আটকে থাকাকালীন দেখেছেন রাতে দালালচক্রের যোগসাজসে কিছু কিছু ট্রাফিক পুলিশ অবৈধভাবে বহু গাড়ি সিরিয়াল ভেঙে ঘাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে দেয়। এ নিয়ে বাক-বিতন্ডা হলে ট্রাফিক পুলিশের এক সদস্য চালক আঃ সালামকে চর-থাপ্পর মারেন। এদিকে গোয়ালন্দ মোড় এলাকায় খোলা সড়কে রাত কাটাতে চালক ও সহকারীরা নানা ধরনের দুর্ভোগের সম্মুখিন হচ্ছেন বলে জানান। খাবার , পানি ও টয়লেটের জন্য তাদের বেশি সমস্যায় পড়তে হচ্ছে ।

এ প্রসঙ্গে রাজবাড়ীর ট্রাফিক পুলিশের ইন্সেপেক্টর (টি, আই ) জহুরুল হক বলেন, দৌলতদিয়া ফেরিঘাটকে যানজট মুক্ত রাখতে গোয়ালন্দ মোড় এলাকায় পচনশীল পন্যবাহী গাড়িগুলোকে আটকে রাখা হচ্ছে। আজকেও (বৃহস্পতিবার) সেখানে অন্তত ৫-৬ কিলেমিটার পর্যন্ত যানবাহনের দীর্ঘ সারি রয়েছে। ঘাটে গাড়ির চাপ কমে আসলেই সেখান থেকে গাড়ি গুলো সিরিয়াল অনুসারে ঘাটের দিকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

সেখানে চালকরা সিরিয়াল নিয়ে অনিয়মের অভিযোগ করলেও তা সঠিক নয়।কোন চালকের গায়ে হাত তোলার কোন কথাও তার জানা নেই। দীর্ঘ সময় সিরিয়ালে আটকে থেকে তারা বিরক্ত হয়ে এগুলো বলতে পারেন।তারপরও এ সকল বিষয়ে খোঁজ নেয়া হবে।৪ দিন পর্যন্ত কোন চালকের আটকে থাকার কথাও সঠিক নয় বলে তিনি দাবি করেন।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্পোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) জামাল হোসেন বলেন, বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ। পদ্মা নদীর পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে তীব্র স্রোতের সৃষ্টি হয়েছে। এ কারণে ফেরি চলাচল ব্যাহত হওয়ায় নদী পারের জন্য ট্রাকগুলোকে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হচ্ছে। তবে দূর্ভোগ কমাতে যাত্রীবাহি যানবাহন ও কাঁচামালের ট্রাকগুলো অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারাপার করা হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

Theme Created By ThemesDealer.Com